মাথা ব্যথা কেন হয়? Why do we get headache?

মাথা ব্যথা কেন হয়?

 

মাথা ব্যথা আমাদের সকলেরই হয়, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রিপোর্ট অনুযায়ী প্রাপ্ত্য বয়স্কদের মধ্যে প্রায় অর্ধেক মানুষ প্রতি বছর কোন না  কোন কারনে মাথা ব্যথায় আক্রান্ত হয়। মাথা ব্যথা আমাদের অহরহ হয়, একটু চিমটির মত ব্যথা থেকে শুরু করে পাগল হয়ে মাথা ফাটিয়ে ফেলার মত ভয়াবহ মাত্রার হতে পারে। কিন্তু কখনো কি আমরা ভেবে দেখেছি এই মাথা ব্যথা কেন হয়?

আমাদের আজকের এই আর্টিকেলে আমরা আলোচনা করব মাথা ব্যথার কারণগুলি সম্পর্কে।

বিশেষজ্ঞদের মতে মাথা ব্যথা দুই রকমের হয়- প্রাইমারি মাথা ব্যথা এবং সেকেন্ডারি মাথা ব্যথা। যখন মাথা ব্যথার পিছনে কোন গভীর শারীরিক সমস্যা না থাকে তাকে প্রাইমারী মাথা ব্যথা বলে আর সেকেন্ডারি মাথা ব্যথার পিছনে বিভিন্ন শারীরিক সমস্যা যেমনঃ- জ্বর, মাথায় আঘাত, টিউমার, দাঁতের সমস্যা অথবা সাইনাসের বিভিন্ন সমস্যা থাকতে পারে।

প্রাইমারী মাথা ব্যথার প্রধান কারণগুলির মধ্যে রয়েছে- মাইগ্রেনের সমস্যা, দুশ্চিন্তা এবং ক্লাস্টার।

মাইগ্রেনের মাথা  ব্যথা প্রচণ্ড ভয়াবহ মাত্রার মাথা ব্যথা। মাইগ্রেনের মাথা ব্যথা হয় যখন আমাদের মস্তিস্কের সেরিব্রাল কর্টেক্সের বিভিন্ন রক্ত চলাচল কমে যায়। মাইগ্রেনের সমস্যায় আক্রান্ত রোগী আলো এবং আওয়াজে অনেক সেন্সিটিভ হন। এছাড়া তারা মাথা ব্যাথা, বমি বমি ভাব এবং মাথার এক পাশে অসহনীয় ব্যথা অনুভব করেন।

টেনশনের কারণে যে মাথা ব্যথা হয় তা অনেক পুরো মাথা জুড়ে হয়। এই মাথা ব্যথা হয় যখন মাথার ও ঘাড়ের পেশীগুলোর উপর ইমোশনাল বা অন্যান্য চাপ পরে।

ক্লাস্টার মাথা ব্যথা কয়েক সপ্তাহ অথবা মাস পর পর ফিরে ফিরে আসে। এই মাথা ব্যথা মাথার এক সাইডে অথবা চোখের চারপাশে হয়। এই মাথা ব্যথার কারণ অজানা। কিন্তু শরীরের রক্ত প্রবাহ অথবা মদ্যপানজনিত কারণ এই মাথা ব্যথার কারণ হতে পারে।

সাধারণত মস্তিস্কে রক্তের অপর্যাপ্ত সরবরাহ মাথা ব্যথার কারণ কিন্তু অতিরিক্ত রক্ত প্রবাহও মাথা ব্যথার কারণ হতে পারে। অনেক মাথা ব্যথার ঔষধে ক্যাফেইন থাকে যা মস্তিস্কে রক্ত সরবরাহের মাত্রা কমিয়ে দিয়ে মাথা ব্যথা কমাতে সাহায্য করে। তাই যারা নিয়মিত কফি খায় দেখা যায় তারা হঠাৎ করে  কফি খাওয়া বন্ধ করে দিলে তাদের প্রচণ্ড মাথা ব্যথা হয়। কারণ হঠাৎ করে তাদের মাথায় অতিরিক্ত রক্ত প্রবাহের সৃষ্টি হয়।

এই গেলো প্রাথমিক বা প্রাইমারী মাথা ব্যথার কারণ আর সেকেন্ডারী মাথা ব্যথা হয় যখন কেউ কোন অসুখে যেমন টিউমার, ভাইরাস জ্বর, মাথায় তীব্র আঘাত ইত্যাদি অসুখে আক্রান্ত হয় তখন।

মাথা ব্যথা স্বাভাবিক ব্যপার সাধারণত একটা ভালো ঘুম দিলে অথবা ব্যথার ঔষধ খেলেই মাথা ব্যথা ভালো হয়ে যায়। কিন্তু আপনি যদি কিছুদিন পর পরই মাথা ব্যথাইয় আক্রান্ত হন তাহলে আপনার উচিত একজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নেয়া। কারণ রোগ যতই সহজ আর ছোট হোক তাকে দীর্ঘদিন জিইয়ে রাখা বোকামি।

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *